Responsive image

পুঁজিবাজারে শিক্ষিত ও সচেতন বিনিয়োগকারী সৃষ্টিতে অগ্রনী ভূমিকা পালন করবে বিএএসএম

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিনিয়োগবার্তা: বাংলাদেশ একাডেমি ফর সিকিউরিটিজ মার্কেটস (বিএসএসএম) দেশের পুঁজিবাজারে শিক্ষিত ও সচেতন বিনিয়োগকারী সৃষ্টিতে অগ্রনী ভূমিকা পালন করবে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম।

তিনি বলেন, ‘আমরা চাই একজন বিনিয়োগকারী তার সঠিক জ্ঞানের মাধ্যমে বিনিয়োগ করবে। যার মাধ্যমে তিনি তার কষ্টের অর্থের ভালো রিটার্ণ অর্জন করবেন। আর বিনিয়োগকারীদের এই জ্ঞান অর্জনের জন্য আমরা পুঁজিবাজার নিয়ে ট্রেনিং প্রোগ্রাম আয়োজন করছি। এছাড়াও যারা বিনিয়োগকারীদের লেনদেনের সঙ্গে সম্পৃক্ত, সেসব অনুমোদিত প্রতিনিধি বা ডিলারদেরও শিক্ষার দরকার আছে।’

সোমবার (৩১ মে) দুপুরে রাজধানীর দিলকুশাস্থ জীবন বীমা টাওয়ারে বাংলাদেশ একাডেমি ফর সিকিউরিটিজ মার্কেটসের (বিএএসএম) নতুন ক্যাম্পাস ও ওয়েবসাইটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

এ সময় বিএসইসির কমিশনার অধ্যাপক ড. শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ, অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান, আব্দুল হালিম, আইসিবির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. কিসমাতুল আহসান, শান্তা অ্যাসেট ম্যানেজমেন্টের ভাইস চেয়ারম্যান আরিফ খান, বিএএসএমের মহাপরিচালক (ডিজি) অধ্যাপক ড. তৌফিক আহমেদ চৌধুরীসহ ঊর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, পুঁজিবাজারে না জেনে বা না বুঝে বা ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে বিনিয়োগ করেন বিনিয়োগকারীরা। পরে ওই ভুলের কারণে তারা নিয়ন্ত্রক সংস্থাসহ স্টক এক্সচেঞ্জকে দায়ী করেন।

তিনি বলেন, বিএসইসি বা স্টক এক্সচেঞ্জ কারো পোর্টফোলিও ম্যানেজ করে না। কে কোন শেয়ার কিনবে বা বিক্রি করবে, এটা আমরা নির্ধারণ করি না। পুঁজিবাজারে নিয়ন্ত্রক সংস্থার মনিটরিং বা সুপারভিশনে দূর্বলতা থাকতে পারে। কিন্তু কারো ব্যক্তিগত পোর্টফোলিও ম্যানেজ করার দায়িত্ব আমাদের নয়। তবে বাজারে কোনো ধরনের ম্যানপুলেশন বা অপরাধ সংঘটিত হলে, তার দায়িত্ব আমাদের।

বিএসইসি চেয়ারম্যান আরও বলেন, একটা বেকার ছেলেকে এনে ডিলার হিসেবে চাকরি দিয়ে দিলেই হবে না। ডিলারদের ট্রেনিং দিতে হবে। তা না হলে তিনি ঠিকমতো কাজ করতে পারবেন না। এ ছাড়া তাদের ভুলের কারণে বাজার ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। তিনি না বুঝে বিনিয়োগকারীদের এমন একটা বিষয় বললেন, যা মুহূর্তেই বাজারে প্যানিক তৈরি করতে পারে। তাই ডিলারদেরও শিক্ষা অর্জন করতে হবে।

তিনি বলেন, ‘আজকে আমাদের এই একাডেমির অফিসটি উদ্বোধন করা হলো। এখানে জনবল নিয়োগ হয়েছে এবং আরও নিয়োগ প্রক্রিয়া চলছে। ভালো শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এখানে স্থায়ী নিয়োগের পাশাপাশি অভিজ্ঞদের এনে খন্ডকালিন ট্রেনিং দেওয়া হবে।

শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, ‘এক বছর আগে যে লক্ষ্য নিয়ে বিএসইসির দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলাম, তা গুটি গুটি পায়ে এগিয়ে চলেছে। আমাদের যে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য তা এখনও অর্জন করতে পারিনি। তবে তা অর্জনের চেষ্টা করছি। সামনের দিনগুলোর জন্য অনেক লক্ষ্য স্থির করা রয়েছে, সেই দিকেই এগিয়ে যাচ্ছি।’

Short URL: http://biniyogbarta.com/?p=146070

সর্বশেষ খবর