Responsive image

বিনিয়োগ শিক্ষা কি?

বিনিয়োগবার্তা ডেস্ক: বিনিয়োগ শিক্ষা হলো ব্যক্তিগত আর্থিক ব্যবস্থাপনা সম্পর্কে জ্ঞান। বিনিয়োগ শিক্ষা বিনিয়োগকারীদের বিভিন্ন বিনিয়োগ পন্যের উপযুক্ততা সম্পর্কে প্রয়োজনীয় জ্ঞান প্রদান করে তাদেরকে সঠিক বিনিযোগ সিদ্ধান্ত নিতে সহায়তা করে। সঠিক বিনিয়োগ শিক্ষার ফলে আর্থিক জালিয়াতি থেকে রক্ষা পাওয়া এবং সুরক্ষিত আর্থিক ভবিষ্যত গড়ে তোলার দ্বৈত সুবিধা পাওয়া যায়।

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) দেশের শিক্ষিত জনগোষ্ঠিকে বিনিয়োগ সংক্রান্ত শিক্ষা প্রদানের জন্য ২০১৭ সালে ‘বিনিয়োগ শিক্ষা’ কার্যক্রম গ্রহন করেছে। একই বছরের ৮ই মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে দেশিব্যাপি ‘বিনিয়োগ শিক্ষা’ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এরপর থেকে পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট সব সংস্থা, প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনগুলো দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ‘বিনিয়োগ শিক্ষা’ কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। এছাড়া দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে বিনিয়োগ সংক্রান্ত শিক্ষা কার্যক্রম চালু করতে সরকারের কাছে সুপারিম করেছে বিএসইসি। পাশাপাশি পুঁজিবাজার নিয়ে কাজ করতে বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেট (বিআইসিএম) ও বাংলাদেশ একাডেমি ফর সিকিউরিটিজ মার্কেট (বিএএসএম) নামে  দুটি প্রতিষ্ঠানও চালু করা হয়েছে। ইতোমধ্যে পুঁজিবাজার তথা বিনিয়োগ শিক্ষা বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিপ্লোমা ও মাস্টার্স কোর্স চালু করেছে  বিআইসিএম। এছাড়া বিএএসএমও এ ধরনের কার্যক্রম হাতে নিয়েছে।

বিএসইসি মনে করে, এসব কার্যক্রমের মাধ্যমে দেশের পুঁজিবাজারে শিক্ষিত ও সচেতন বিনিয়োগকারী সৃষ্টি করা হবে। আর এটি হলে দেশের আর্থিক খাতে দক্ষ লোকবল সৃষ্টির মাধ্যমে সার্বিক খাতটি উপকৃত হবে।

এদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক ও বিভিন্ন ব্যাংকের আর্থিক সেবা, পণ্য ও অন্যান্য কার্যক্রমের তথ্য সমাজের বিভিন্ন শ্রেনীর জনগোষ্ঠীর নিকট পৌঁছে দেয়ার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক ফিন্যান্সিয়াল লিটারেসি কার্যক্রম গ্রহ্ন করেছে। বিভিন্ন জনগোষ্ঠীর মধ্যে সছুল-কলেজগামী ছাত্র-ছাত্রী, মহিলা, গ্রাম ও শহরের দরিদ্র জনসাধারণ এবং বয়স্ক নাগরিকদের বিশেষভাবে প্রাধান্য দিয়ে এই কার্যক্রমকে সাজানো হয়েছে। সাধারণ মানুষের ব্যক্তিগত ব্যয়, ঋণ, বিনিয়োগ দীর্ঘমেয়াদি আর্থিক পরিকল্পনার সাথে সম্পৃক্ত করার উদ্দেশ্য নিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক কার্যক্রম শুরু করেছে। একই সাথে বাংলাদেশ ব্যাংক গ্রাহকদের আর্থিক সেবা এবং আর্থিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে চায়। নিজের জন্য মানানসই এবং শ্রেষ্ঠ সেবা চিহ্নিত করার জন্য পর্যাপ্ত তথ্য। বাংলাদেশ ব্যাংক গ্রাহকদের এই তথ্য প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে চায়। এ কার্যক্রমের আর একটি উদ্দেশ্য হছে দেশের বৃহৎ জনগোষ্ঠী, যারা ব্যাংকিং সেবা গ্রহণ করছে না, ব্যাংকিং অর্থ জমা করছে না বা ঋণ নিচ্ছে না, সেই জনগোষ্ঠীকে তথ্য দিয়ে সমৃদ্ধ করা।

(এসএএম/০৫ জুন ২০২১)

Short URL: http://biniyogbarta.com/?p=146540

সর্বশেষ খবর